Archives: ratnapathors

PEARL STONE (মুক্তা পাথর)

আল-কোরআনের ৫৫  সূরা “আর-রাহমান” এর ২১ ও ২২ নং আয়াতে আল্লাহতালা প্রবাল পাথরের কথা উল্লেখ করেছেন—“যার মাঝ থেকে এসেছে মুক্তা ও প্রবাল” তোমরা আমার কোন কোন নিয়ামতকে অস্বীকার করবে?

মুক্তা পবিত্রতা এবং মাতৃত্বর সাথে যুক্ত। “Marifat al Jawahir” এর বিজ্ঞ লেখক “Syedi Ibrahim Saify, manuscript” নিন্মের বিষয় গুলো উল্লেখ করেছেন—-

  • মুক্তা পাথর ধারনে আকর্ষণী করে তলে এবং আধ্যাত্মিকতার উন্নয়ন ঘটায়।
  • দায়িত্ব ও কর্তব পালনে উৎসাহিত করে তোলে।
  • একজনের ব্যবহার করা মুক্তা অন্য কেও ব্যবহার করা উচিৎ নয়। কারন পূর্বে ব্যবহার কৃত ব্যক্তির শরীরের ক্ষতিকর বিষয় গুলো নতুন ব্যক্তির শরীরে প্রবেশ করাতে উদ্বুদ্ধ করে থাকে।
  • মুক্তা পাথর গর্ভপাত থেকে রক্ষা করে।
  • যৌন রোগে মুক্তা উপকারী।

মুক্তা পাথর নাম হলেও প্রকৃত পক্ষে মুক্তা মাটির নিচ থেকে পাওয়া কোন খনিজ পাথর নয়। মুক্তা পাওয়া যায় নদীতে, সমুদ্রে থাকা ঝিনুকের ভেতর থেকে। এক সময় মুক্তা পাওয়া যেত প্রাকৃতিক ভাবে। বর্তমানে মুক্তা চাষ করা হয়ে থাকে। তারপরেও এখনো প্রাকৃতিক নিয়মে নদী ও সমুদ্রর ঝিনুক থেকে মুক্তা পাওয়া যায়। তাই চাষের মুক্তার থেকে অনেক অনেক বেশী মূল্যবান প্রাকৃতিক ভাবে পাওয়া মুক্তা। আর বিশেষ করে সমুদ্র থেকে যে মুক্তা পাওয়া যায় এর উপকার বেশী হয়ে থাকে। জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে মুক্তা পাথরের উপকারিতা তুলে ধরা হচ্ছেঃ

  • মুক্তা পাথর ব্যবহারে ব্যবহারকারীর মন শান্ত হওয়া, চোখের দৃষ্টি প্রখর হওয়া, ভালোবাসা বৃদ্ধি পাওয়া, পারিবারিক জীবনে শান্তির বৃদ্ধি সহ বিভিন্ন উপকার পেতে পারেন।
  • কোন ব্যক্তি যখন দুশ্চিন্তা গ্রস্থ থাকে, সিদ্ধান্তহীনতায় ভোগে তখন মুক্তা পাথর ব্যবহার উপকার বয়ে আনতে পারে।
  • বিশেষ করে যে সকল মানুষের মাথা খুব গরম থাকে, হঠাৎ করে উত্তেজিত হয়ে যায় তাদের জন্য মুক্তা পাথর ব্যবহার খুব উপকারী।
  • চন্দ্র গ্রহের সকল খারাপ প্রভাব থেকে মুক্ত থাকতে মুক্তা পাথর সাহায্য করতে পারে।
  • ঘুমের মাঝে অশান্তি, অনিদ্রা থেকে মুক্ত পেতে মুক্তা পাথর সাহায্য করতে পারে।
  • গলার সমস্যা, চোখের সমস্যা এবং ডাইরিয়া জনিত সমস্যায় মুক্তা পাথর চন্দ্রের খারাপ প্রভাব থেকে মুক্ত রেখে ব্যবহারকারীকে সাহায্য করতে পারে।
  • মুক্তা পাথর ব্যবহারে সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়, বিশেষ করে মেয়েদের ত্বকের লাবণ্য বৃদ্ধি করে।
  • শারীরিক যে কোন প্রকার অসুস্থতায় মুক্তা পাথর ব্যবহার উপকারী।
  • বিশ্বাস করা হয় যে মুক্তা পাথর ব্যবহারে সম্মান, শ্রদ্ধা এবং সম্পদ বৃদ্ধি পেয়ে থাকে।
  • স্মৃতি শক্তি বৃদ্ধি এবং ব্রেইনের ক্ষমতা বৃদ্ধি করে মুক্তা পাথর।
  • এও বিশ্বাস করা হয় যে মুক্তা পাথর ব্যবহারে সৌভাগ্য সূচীত হয়।
  • স্বামী স্ত্রীর মাঝে পারস্পরিক আস্থা, মমতা, দায়িত্ববোধ ও ভালোবাসা বৃদ্ধিতে মুক্তা পাথর সাহায্য করে থাকে।

GARNET STONE (গোমেদ পাথর)

জ্যোতিষশাস্ত্র অনুসারে রাহু গ্রহের রত্ন হল গোমেদ। হালকা হলুদ থেকে গাঢ় বাদামি রঙের হয় এই পাথর। অনেকটা মধুর মতো রং হয় গোমেদ পাথরের। গোমেদ আসলে গারনেটের একটি রূপ। রাহু যদিও সৌর জগতের কোনও অংশ নয়, তবু বৈদিক জ্যোতিষশাস্ত্র অনুসারে রাহু হল একটি ছায়া গ্রহ। জ্যোতিষশাস্ত্রে রাহুর প্রচুর গুরুত্ব রয়েছে। রাহু যাদের নিয়ন্ত্রক, তাদের প্রকৃতির মধ্যে প্রচুর গোপনীয়তা থাকে। রাহুর কুদৃষ্টির ফলে কারোর মানসিক শান্তি নষ্ট হতে পারে।

রাহুর প্রভাব কাটাতে গোমেদ ধারণ করার পরামর্শ দেন জ্যোতিষবিদরা। রাাহুর প্রভাবে মানুষের মনে নানা ধরনের দ্বিধা দেখা দিতে পারে। এমনকি রাহুর কুদৃষ্টির কারণে মানুষের মনে শয়তানি বুদ্ধির উদ্রেক হতে পারে। রাহুকে নিয়ন্ত্রণ করার ক্ষমতা রয়েছে গোমেদ পাথরের। রাহুর কু-দশা কাটাতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে গোমেদ। রাহুর দশা যাদের চলে, তাদের মনে দ্বিধা দূর করার জন্য গোমেদ ধারণ করার পরামর্শ দেওয়া হয়।

করোর জন্মছকে রাহু দুর্বল রাহুর পজিটিভ এনার্জির প্রভাব ওই ব্যক্তির ওপর পড়বে না। সেক্ষেত্রে তাঁকে গোমেদ ধারণ করতে বলা হয়। রাহু দুর্বল থাকলে জীবনে বারবার ব্যর্থতা, শারীরিক অসুস্থতা এবং আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হতে পারে। এই পরিস্থিতি থেকে ফিরিয়ে আনতে পারে গোমেদ। এছাড়া গোমেদ শত্র‌ুনাশ করে এবং মন থেকে ভয় দূর করতে সাহায্য করে। গোমেদ ধারণ করলে সেই ব্যক্তির ওপর কোনও কালা জাদু বা ব্ল্যাক ম্যাজিক কাজ করতে পারে না বলেও মনে করা হয়।

তবে গোমেদ ধারণ করার আগে অবশ্যই কোনও জ্যোতিষবিদের পরামর্শ নিয়ে নেবেন। আপনার সত্যিই গোমেদ ধারণ করার প্রয়োজনীয়তা আছে কিনা, তা দেখে নিয়ে তবেই আঙুলের আংটি বা গলায় হারের লকেট করে গোমেদ পরতে পারেন। গোমেদ রূপো দিয়ে বাঁধিয়ে নেওয়াই ভালো। গোমেদ ধারণ করলে রাহুল পজিটিভ এনার্জি পাওয়া যায়। ফলে রাহু দুর্বল থাকলে তার নেগেটিভ এনার্জি ওই ব্যক্তির ক্ষতি করতে পারবে না। ব্যবসা বা রাজনীতির সঙ্গে যারা যুক্ত তাঁদের জন্য গোমেদ বেশ উপযোগী।

Akik Pathor (আকিক পাথর)

আমাদের এখানে পাচ্ছেন আসল এবং নকল রাশি রত্ন পাথর পাশাপাশি রেখে দেখে চিনে নেবার সুযোগ, ফলে কোনটা আসল এবং কোনটা নকল এমন প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার পাশাপাশি নকল রত্ন পাথরকে আর আসল বলে বিক্রির কোন সুযোগ আমাদের এখানে থাকেনা।

হয়তো এমন কোথাও থেকে পাথর কিনেছেন অথবা দেখেছেন যেখানে একই পাথরের যে দেশ ভেদে, কোয়ালিটি ভেদে মূল্যর পার্থক্য হয় তা জানতেই পারেননি। অথবা হাত মুঠ করে আপনাকে অন্ধের মত একটি পাথর ধরিয়ে দিয়েছেন আসল এবং ভালো কোয়ালিটি বলে। ফলে পাথর সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানার কোন সুযোগ পাচ্ছেন না। আর আমাদের এখানে পাচ্ছেন আমাদের সংগ্রহে থাকা একই পাথরের দেশ ও কোয়ালিটির উপর নির্ভর করে বিভিন্ন মূল্যর রাশি রত্ন পাথর, যা আপনি পাশাপাশি রেখেই কোয়ালিটির পার্থক্য তুলনা করে নিজের বাজেট অনুযায়ী পছন্দের পাথরটি সংগ্রহ করতে পারবেন। আমাদের প্রতিটা পাথরের মূল্য পূর্বে থেকেই নির্দিষ্ট করে উল্লেখ করা থাকে। ফলে ক্লায়েন্ট এবং তার আর্থিক অবস্থা বুঝে মূল্য কমানো বা বাড়ানোর কোন সুযোগ আমাদের থাকে না এবং সবার জন্য সমান মূল্য।

Akik Stone (সোলেমানি আকিক স্টোন)

## আমাদের এখানে পাচ্ছেন আসল এবং নকল  রত্ন পাথর পাশাপাশি রেখে দেখে চিনে নেবার সুযোগ, ফলে কোনটা আসল এবং কোনটা নকল এমন প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার পাশাপাশি নকল রত্ন পাথরকে আর আসল বলে বিক্রির কোন সুযোগ আমাদের এখানে থাকেনা।

### হয়তো এমন কোথাও থেকে পাথর কিনেছেন অথবা দেখেছেন যেখানে একই পাথরের যে দেশ ভেদে, কোয়ালিটি ভেদে মূল্যর পার্থক্য হয় তা জানতেই পারেননি। অথবা হাত মুঠ করে আপনাকে অন্ধের মত একটি পাথর ধরিয়ে দিয়েছেন আসল এবং ভালো কোয়ালিটি বলে। ফলে পাথর সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানার কোন সুযোগ পাচ্ছেন না।  আর আমাদের এখানে পাচ্ছেন আমাদের সংগ্রহে থাকা একই পাথরের দেশ ও কোয়ালিটির উপর নির্ভর করে বিভিন্ন মূল্যর রাশি রত্ন পাথর, যা আপনি পাশাপাশি রেখেই কোয়ালিটির পার্থক্য তুলনা করে নিজের বাজেট অনুযায়ী পছন্দের পাথরটি সংগ্রহ করতে পারবেন। আমাদের প্রতিটা পাথরের মূল্য পূর্বে থেকেই নির্দিষ্ট করে উল্লেখ করা থাকে। ফলে ক্লায়েন্ট এবং তার আর্থিক অবস্থা বুঝে মূল্য কমানো বা বাড়ানোর কোন সুযোগ আমাদের থাকে না এবং সবার জন্য সমান মূল্য।

### সর্বশেষ পাচ্ছেন আমাদের প্রতিটা আসল  রত্ন পাথরের সাথে বাকি জীবনে নকল প্রমাণে সম্পূর্ণ লিখিত মূল্য ফেরত গ্যারান্টি কার্ড। ফলশ্রুতিতে আমাদের প্রতিটা রত্ন পাথরের দায়িত্ব আমাদের। কিন্তু ভাগ্য পরিবর্তনের কথা বলে আমরা কোন প্রকারের রত্ন পাথর বিক্রি করিনা

Category:

Star Ruby (স্টার রুবি)

রুবি পাথর এবং স্টার রুবি পাথর (Gemstone Star Ruby) একই পাথর, শুধু মাত্র গঠন মূলক পার্থক্যর কারনে আলাদা দেখতে হয়। এছাড়া এ দুই পাথরের সকল ক্যামিকেল এক। যেমন আঁখ থেকে রস বেড় করে খেলে সেটা আঁখের রস, আবার সেটা দিয়ে চিনি বানালে আঁখের চিনি, গুঁড় বানালে সেটা হয় আঁখের গুঁড়। এক কথায় রস, চিনি এবং গুঁড় সবই আঁখ থেকে। ঠিক এমনি ভাবে রত্ন পাথর রুবি এবং স্টার রুবি পাথর একই পাথর। কিছু কিছু জ্যোতিষ আছেন যারা স্টার রুবি পাথরকে রুবি পাথরের উপরত্ন বলে থাকেন এবং রুবি পাথরের সাথে এ পাথর ব্যবহার করতে বলেন। বেশির ভাগ সময়ে দেখা যায় যে তিনি নকল রুবি পাথর বিক্রি করে তার সাথে স্টার রুবি পাথর ব্যবহার করতে বলেন যাতে কাজ করলে ঐ স্টার রুবি পাথরেই কাজ করে। একদিকে একটি নকল পাথর বিক্রি ঢাকা পরে যায় অন্য দিকে একই কাজে দুইটি পাথর বিক্রি করা যায়। তাই স্টার রুবি পাথরের সকল তথ্যই রুবি পাথরের মত। তাই রুবি পাথরের তথ্যই এখানে তুলে ধরা হল।

 

মহান আল্লাহ মানবজীবনের জন্য পৃথিবীতে হাজারো নিয়ামত অর্পিত করেছেন। রাশিরত্ন পাথর তাদের মধ্যে একটি নিয়ামত। এই নিয়ামতের মধ্যে কিছু কিছু রত্ন পাথর অনেক মূল্যবান আবার কিছু কিছু একেবারেই সাধারন। মহান আল্লাহতালা “রুবি পাথরের” নিয়ামতের গুনের কারনে পবিত্র কোরআন শরিফে সূরা “আর-রহমান” এর ৫৮ নং আয়াতে রুবি কে নিয়ামত হিসেবে উল্লেখ করেছেন বলেছেন —-“রুবি এবং প্রবাল যেন সৌন্দর্যেরই প্রকাশ”

 

মুহাম্মাদ বাকির মাজলিসি (১৬১৬-১৬৯৮) এর হাদিস থেকে পাওয়া যায়, রাসুলুল্লাহ (সাঃ) বলেনঃ “সকলের জন্য এই পাথর (রুবি) সব থেকে উপকারী”।

 

আবি আব্দুল্লাহ ইমাম জাফর আসাদ্দিক হতে বর্ণীত “এটা (রুবি) দারিদ্রতা এবং দুশ্চিন্তা দূর করে”।

 

আল শাখস আল ফাজিল সাহেব আল রাসাইল ব্যাখ্যা করেছেনঃ “রুবি হচ্ছে সকল রত্ন পাথরের মধ্যে শ্রেষ্ঠ। এবং বিশ্বাস করা হয় রত্ন পাথরের মধ্যে রুবি সর্বপ্রথম আল্লাহর তাওহীদ বিশ্বাস করে। এমন কি কথিত আছে যে রুবি ব্যবহারকারীর শারীরিক অবস্থার উপর নির্ভর করে রুবি পাথরের রঙ পরিবর্তিত হয়।

 

Star Ruby Stone or Rotno Pathor Star Ruby কে বাংলায় আমরা স্টার রুবি পাথর বা রত্ন পাথর স্টাররুবি বলেই চিনে থাকি। যদিও রুবি পাথরের প্রকৃত বাংলা হচ্ছে চুনি। রুবি পাথরের রঙের মধ্যে কবুতবের রক্তের মত রঙের রুবি সাহসিকতা ও বীরত্বের প্রতিক। আনুমানিক দুইশত বছর পূর্বে ভারত উপমহাদেশে ইসলামিক বিজ্ঞানের মহান সাধক “সাইয়েদি ইব্রাহিম সাইফি” রুবি পাথরের সৃষ্টি সম্পর্কে বলেছেন—-“আদম (আঃ) জান্নাত থেকে পৃথিবীর যে স্থানে অবতরন করেন সেটা ছিল শ্রিলাঙ্কা। তিনি শ্রিলাঙ্কার একটি পাহাড়ের চূড়ায়  অবস্থান করেন।তার পবিত্র পায়ের স্পর্শে সৃষ্টি হয় রুবি পাথর”। “মাকতাল আবি আব্দুল্লাহ ইমাম আল হুসাইন” থেকে বর্ণীত—-“১০ মুহাররাম ইমাম হুসাইন (রাঃ) এর শাহাদাতের দিন তার হাতে রুবি পাথরের আংটি পরা ছিল”।

 

“Tradition of Ahl al Bait” এর থেকে বর্ণীত যে, রুবি পাথর ব্যবহারে দুশ্চিন্তা কমে যায় এবং দুঃসময় কমতে থাকে।

 

সাইয়েদি ইব্রাহিম সাইফি তার “মারিফাত আল জাওয়াহির” বইতে রুবি পাথরের বিভিন্ন উপকারিতার কথা উল্লখ করেছেন—-

  1. রক্ত স্বল্পতা দূর করে, রক্ত বাহিত রোগ নিরাময় করে এবং রক্ত ক্ষরণ রোধ করে।
  2. হৃদরোগে উপকার করে।
  3. “Ahl al Bait” বই অনুসারে যদি আমরা রুবি পাথরের উপকারে কথা হিসাব করি তাহলে সকল রত্ন পাথর থেকে এর উপকার বেশি হবে।
  4. স্বামী-স্ত্রী এর মধ্যে একান্ত আনন্দের সময় দীর্ঘ করে।
  5. পুরনো জ্বর ভালো করে এবং দুঃস্বপ্ন দূর করে।
  6. আশেপাশের মানুষের মধ্যে সম্মান এবং প্রতিপত্তি বৃদ্ধি করে এবং সমস্যা সমাধানে সাহায্য করে।
  7. “সাহেব আল কারাতিস আল ইয়ামেনিয়া” এর মতে বিরোধ ও যুদ্ধের সময় নিরাপত্তার জন্য যোদ্ধারা রুবি পাথর ব্যবহার করত। এমনকি আরব যোদ্ধারাও রুবি এমন ভাবে রুবি পাথর ব্যবহার করত যাতে তা শরীর স্পর্শ করে শক্তি ও সম্মান বৃদ্ধি করে।
  8. রুবি পাথর কামসক্তি উদ্দিপ্ত ও দীর্ঘায়ীত করে।
  9. এটা ব্যবহারে আকর্ষণ করার ক্ষমতা বারে এবং প্রেম ও বন্ধুত্ব বজায় রাখে।
  10. রুবি ব্যবহারে ব্যবহারকারী বিপদের জন্য সতর্ক থাকে।
  11. সাস্থ ও সুখ বজায় রাখে।
  12. শিশুদের গলায় রুবি পাথর পরিয়ে দিলে রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায় এবং মেয়েদের কোমরে রুবি ব্যবহার করলে দুর্ঘটনা জনিত গর্ভপাতে বাধা দেয়।
  13. উল্লেখিত সকল প্রকার উপকার নির্ভর করে মহান আল্লাহর ইচ্ছার উপর। তাই আল্লাহর নিয়ামত ভেবে শুধু মাত্র আল্লাহর উপর ভরসা করে রত্নপাথর ব্যবহার করা উপকারী। এখানে কোথাও উল্লেখ নেই যে রত্নপাথর ভাগ্য বদলে দেয়।

 

জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে যাদের সিংহ রাশি ( Leo)  July 21- August 20 তাদের রাশির পাথর হচ্ছে রুবি পাথর (Ratno Pathor Ruby)। সাধারণত যে সকল মানুষের কোন কাজ শুরু করার সময় ভালো থাকে কিন্তু শেষে এসে কাজটি নষ্ট হয়ে যায় বা কাজটি থেকে কাংখিত ফলা পাওয়া যায় না তাদের জন্য প্রথম পাথর হচ্ছে রুবি। সূর্যের প্রতিনিধিত্ব করে থাকে রুবি। আর সূর্য হচ্ছে সকল শক্তির উৎস। তাই জীবনে শক্তির প্রভাবে কাজে লাগাতে রুবি পাথরের গুরুত্ব অনেক।

(Benefits of Star Ruby Stone) রুবি পাথর ব্যবহারে জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে পাওয়া উপকার গুলো নিম্নরূপঃ

  1. যে সকল মানুষ কাজের শুরুতে খুব আগ্রহ বোধ করে কিন্তু একটু এগিয়ে যাবার পরেই সেই আগ্রহ হারিয়ে ফেলে, ফলে কাজটি হাত ছাড়া হয়ে যায়, সে সকল মানুষের জন্য রুবি পাথর উপকারী।
  2. রুবি পাথর আভিজাত্যর প্রতীক। তাই এ পাথর আভিজাত্য বৃদ্ধি করার পাশাপাশি পেশা গত জীবনে, স্থায়ী সম্পদ বৃদ্ধিতে ও সম্মান বৃদ্ধিতে রুবি পাথর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে।
  3. সাধারণত যে মানুষের আত্মবিশ্বাস কম তাদের মনের জোর বাড়াতে রুবি পাথরের তুলনা নেই।
  4. রুবি পাথর ব্যবহারে প্রশাসনিক, আঞ্চলিক ও অফিশিয়াল কাজে সাহায্য পাওয়া যায়।
  5. প্রাকৃতিক রুবি পাথর দেখতে লাল বর্ণের যা শখ ও ভালোবাসার প্রতীক। ভালোবাসার উপহার বলা হয় রুবি পাথরকে।
  6. রুবি পাঠ ব্যবহারে মানুষের দ্বিধা কমে আসে, দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধি করে, যে সকল মানুষ কাজের সঠিক লক্ষ নির্ধারণ করতে পারেনা তাদের লক্ষ্য স্থির করতে সাহায্য করে।
  7. এ পাথর ব্যবহারে আত্ম সচেতনতা বৃদ্ধি করে, উপলব্ধি বাড়ায়, জীবনে এগিয়ে যেতে সাহায্য করে। বিশেষ করে যারা প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে থাকে, চিকিৎসা শাস্ত্রে নিয়োজিত, কৃষি কাজে জড়িত, রাজনীতিবিদ ও সরকারী চাকুরেদের জন্য রুবি পাথর উপকারী।
0
    0
    Your Cart
    Your cart is emptyReturn to Shop